চকরিয়া ফাঁসিয়াখালীতে বসতভিটা দখলে নিতে অসহায় পরিবারের উপর হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:39 AM, 21 July 2020

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে অসহায় পরিবারের বসতভিটার জমি জবর দখলে নিতে হামলা ও ভাঙ্গচুরের ঘটনা ঘটেছে। হামলায় ওই পরিবারের শিশু, নারীসহ ৩জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করেন।
চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ ঘুনিয়া ৫নং ওয়ার্ডে ১৬ই জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। অভিযোগে জানা গেছে, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৫নং ্ওয়ার্ডে দক্ষিণ ঘুনিয়া এলাকার মৃত ছৈয়দ আহমদের পুত্র মোঃ ফজল কাদেরের বি.এস খতিয়ানভুক্ত মালিকানাধীন দীর্ঘদিনের ভোগ দখলীয় পৈত্রিক বসতভিটার জমি। উক্ত জমি বসতভিটা জবর দখলে নিতে প্রাণে হত্যা চেষ্টাসহ ইতিমধ্য বেশ কয়েকবার হামলার শিকার হন ফজল কাদেরের স্ত্রী কহিনুর আকতার। ফজল কাদেরের ভাই সন্ত্রাসী আবদুল কাদের মানিক গংয়ের নেতৃত্বে বিগত ১৯মার্চ ২০১৯ এ ধরণের সন্ত্রাসী হামলা করে জবর দখলের চেষ্টা চালিয়ে ছিল। ওই ঘটনায় ও আবদুল কাদের মানিক গংয়ের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সি.আর ৩২৯/১৯ নং মামলা হয়। উক্ত মামলায় আবদুল কাদের মানিক জেলে যায়। জেল থেকে জামিনে এসে পুনরায় বসতভিটা জবর দখলসহ প্রাণে মেরে ফেলার, হুমকি-দমকি দিয়ে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় অভিযুক্ত আবদুল কাদের মানিকের নেতৃত্বে তার স্ত্রী খুরশিদা বেগম ও তার পুত্র সাঈদীসহ ভাড়াটিয়া নিয়ে ধারালো অস্ত্রশস্ত্র সহকারে ১৬ই জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে অতর্কিত হামলা ও ভাংচুর চালায়। হামলাকারীদের বাধা দিতে গিয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন ফজল কাদের স্ত্রী কহিনুর আকতার (২৮), শিশু পুত্র আফিয়া জন্নাত (৮) ও ফজল কাদের (৩৬)। আহতদের মধ্য কহিনুর আকতারের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
এ ঘটনার বিষয়ে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন বলেন, মৃত ছৈয়দ আহমদের পুত্র আবদুল কাদের মানিক এলাকার একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী। সে আপন সহোদর ফজল কাদেরের বসতভিটা জবর দখলের জন্য গত বছর থেকে হামলা, ভাঙ্গচুর, হুমকি-দমকি দিয়ে আসছে। সে কারো বিচার মানেনা। এলাকায় মানিক বেপরোয়া হওয়াতে ঘরছাড়া ফজল কাদেরের স্ত্রী।
ফজল কাদেরের স্ত্রী গুরুত্বর জখমী কহিনুর আকতার সাংবাদিকদের কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, আমি চার সন্তান নিয়ে স্বামীসহ মানবেতর জীবন যাপন করছি। প্রাণ হত্যা চেষ্টা থেকে বাঁচতে,মাননীয় সংসদ মহোদয়, উপজেলা চেয়ারম্যান, আইন প্রয়োগ সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা ।
পরিবারের পক্ষ থেকে জানান মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

আপনার মতামত লিখুন :