Main Menu

যোগ্য নেতৃত্বই কাম্য

সম্পাদকীয়
আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। দলটির সহযোগী সংগঠনগুলোর বিতর্কিত নেতাদের শুদ্ধি অভিযানের আওতায় এনে অল্প সময়ের মধ্যেই তিনি আবার সম্মেলন আহ্বান করার মাধ্যমে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ এবং কৃষক লীগের নতুন নেতৃত্ব নির্ধারণ করেছেন।

কিছুদিন আগে তিনি ছাত্রলীগ ও যুবলীগের বেশ কয়েকজন নেতাকে দুর্নীতি ও অনৈতিক কার্যকলাপের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করেছেন। এর ফলে নবনির্বাচিত নেতারা দুর্নীতি-অনিয়ম এবং নীতিবহির্ভূত কাজ করার আগে দশবার ভাববেন। জনগণ পাবেন নীতিবান ও নিবেদিতপ্রাণ নেতা।

ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতারাই ভবিষ্যতের মূল দলের নেতারূপে আবির্ভূত হবেন। তাদের হাতেই উঠে আসবে ভবিষ্যতে দেশ গড়ার দায়িত্ব। এ কথা নবনির্বাচিত নেতাকর্মীদের মনে রাখতে হবে। রাজনীতিতে দীর্ঘকাল পথচলা বড়ই কঠিন কাজ।

এখানে সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে না যেতে পারলে পিছিয়ে পড়তে হয়। আবার সুনামের সঙ্গে এগিয়ে এসে সামনের কাতারে চলে এলে পড়তে হয় খ্যাতির বিড়ম্বনায়। খ্যাতির বিড়ম্বনা বড়ই কঠিন ও জটিল বিষয়। খ্যাতিমান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সহজেই সবার নজরে পড়েন, তার কাছে এগিয়ে আসেন প্রশাসনের লোক, পারিপার্শ্বিক প্রভাবশালী লোক, পেশিশক্তির লোক এবং চাটুকারের দল। নেতা হয়ে পড়েন দিশেহারা। চলতে শুরু করেন উল্টোপথে।

কোনটা সঠিক, কোনটা বেঠিক, কোনটা উচিত, কোনটা অনুচিত, ঠিক বুঝে উঠতে পারেন না। ফলে হয়ে যান পথভ্রষ্ট। এককালের জনপ্রিয় নেতা সবার কাছে হয়ে ওঠেন অপাঙক্তেয়। অতীতের নেতাদের পরিণতি অবলোকন করে বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের সঠিক, সুন্দর ও ন্যায়ের পথে চলতে হবে। তবেই ভবিষ্যৎ আওয়ামী লীগ নেতৃত্ব হয়ে উঠবে যোগ্য ও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য।

অল্প কিছুদিন পরই আওয়ামী লীগ মূল দলের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। দেশবাসীর একান্ত প্রত্যাশা, জননেত্রী শেখ হাসিনা যোগ্য, সৎ ও নীতিবান নেতাদের দায়িত্বশীল পদে আসীন করবেন। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার পক্ষশক্তি। এ দলের রয়েছে অসাম্প্রদায়িক দর্শন। তারা পারে আগামী দিনগুলোতে জনহিতকর পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে।

বিগত দিনগুলোতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে উন্নতির সোপানে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। দেশে বর্তমানে কোনো অস্থিরতা নেই। দেশ রয়েছে পরিপূর্ণভাবে শান্ত ও সুশৃঙ্খল। কিন্তু অতীতে দলীয় কিছু নেতার অপরিণামদর্শী কার্যকলাপের কারণে আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি কিছুটা ক্ষুণ্ণ হয়েছে। এ অবস্থায় দেশবাসী দলটি ও দলের সহযোগী সংগঠনগুলোর নতুন নেতৃত্বের মাঝে আশার আলো দেখতে চায়। আলোকিত হয়ে উঠতে চায়।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*