• বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫৮ অপরাহ্ন
Headline
চকরিয়ায় নলবিলা বন বিটের বাগান থেকে নিজের বাগান দাবি করে বিপুল গাছ কর্তন শীতার্ত ছিন্নমূল মানুষ এবং অবহেলিত কক্সবাজারের দরিদ্র জনগণ —– সাংবাদিককে অস্ত্র দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন শাহীন সরওয়ার! ডুলাহাজারায় ইউপি মেম্বারের নেতৃত্বে পরিষদে হামলা, ইউপি সচিব, গ্রামপুলিশসহ আহত ৫ চকরিয়ায় দিনদুপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, লুটপাট, আহত-২ চকরিয়া প্রবাসী কল্যাণ একতা সমবায় সমিতির প্রথম বর্ষপূর্তি চকরিয়া ফাসিয়াখালীতে ডাকাতির প্রস্তুতি কালে ৩ জন আটক চকরিয়া বদরখালীতে কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পের স্টাফ কোয়ার্টারে হামলা, মালামাল লুট ঢেমুশিয়া জিন্নাত আলী চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন বনবিভাগের ৫ একর সংরক্ষিত বনভূমি জবরদখল মুক্ত

ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

Reporter Name / ৪০৪ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ

স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী জিয়াবুল হকের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

চকরিয়া পৌরসভা নির্বাচনে নাগরিক কমিটি মনোনীত স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মোঃ জিয়াবুল হক সহ তার নিকটাত্মীয় ও কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী আলমগীর চৌধুরী কতৃক দায়ের করা মামলা “মিথ্যা, উদ্দোশ্য প্রনোদিত ও নির্বাচন বানচালের যড়যন্ত্র” আখ্যায়িত করে ১৪ সেপ্টেম্বর বিকেলে মেয়র প্রার্থী জিয়াবুল হকের পক্ষে সংবাদ সম্মেলন করেন।
সংবাদ সম্মেলনে জিয়াবুল হকের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চকরিয়া আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট হাবিব উদ্দিন মিন্টু।

সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া লিখিত বক্তব্য হুবহু তুলে ধরা হলো —

“প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুরা,

বক্তব্যের শুরুতে সালাম নিবেন। আপনারা জানেন, পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চকরিয়ার মাটি আজ উত্তপ্ত৷ একটি মহল একের পর এক ষড়যন্ত্র করে নির্বাচন বানচালে ব্যস্ত। তাদের উদ্দেশ্য নির্বাচনের পরিবেশকে ঘোলাটে করে সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট করা, বিরোধী প্রার্থীকে হামলা-মামলার মাধ্যমে নির্বাচন থেকে সরিয়ে ভোট ডাকাতি করে জয় লাভ করা।

প্রিয় কলমযোদ্ধারা,

এরই অংশ হিসেবে নাগরিক কমিটি মনোনীত স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী জিয়াবুল হক সহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে নৌকার প্রার্থী আলমগীর চৌধুরী। পৌরসভার সাধারণ ভোটাররা ঘৃণাভরে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাখ্যান করেছে। কারণ, এই ঘটনার সাথে জিয়াবুল হকের কোন সম্পৃক্ততা নেই। প্রিয় জাতির বিবেকগণ, আপনারা এরই মধ্যে দেখেছেন, তফসিল ঘোষণার পর থেকেই আলমগীর চৌধুরী আইনের তোয়াক্কা না করে দফায় দফায় আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে। কিন্তু সরকার দলীয় প্রার্থী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। একজন সচিবের নেতৃত্বে গড়ে ওঠা সিন্ডিকেটের এজেন্ডা অনুযায়ী চকরিয়া পৌরসভায় প্রহসনের নির্বাচন আয়োজনে ব্যস্ত তারা।

প্রিয় সহযোদ্ধাগণ,

আমরা দৃঢ় প্রত্যয়ে বলতে চাই, ষড়যন্ত্র করে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদেরকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা যাবে না। সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। তাই প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানাবো, সব প্রার্থীদের জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরেপক্ষ নির্বাচন আয়োজনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। আর ষড়যন্ত্রকারীদেরকে বলবো, পাতানো নির্বাচনের নামে কোন রকম প্রহসন মঞ্চস্থ করা হলে জনগণকে সাথে নিয়ে তা শক্ত হাতে প্রতিহত করা হবে।

নিবেদক,

জিয়াবুল হকের পক্ষে

মোঃ হাবিব উদ্দিন মিন্টু
এডভোকেট
সভাপতি, আইনজীবী সমিতি চকরিয়া।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category