• শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১১:২০ অপরাহ্ন
Headline
চকরিয়ায় বন্যার কারণে যেসব এলাকায় বিদ্যুৎ থাকবেনা চকরিয়া বদরখালীতে জোরপূর্বক জমি দখলে নিতে পরিকল্পিত হামলায় আহত ৫ সুবর্ণচরে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার, তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ, থানায় জিডি চকরিয়ায় জমির আইল কেটে জবর দখল: কৃষক কে কুপিয়ে জখম অলিম্পিক ফুটবল টুর্ণামেন্ট’২১ চ্যাম্পিয়ন আবির স্পোর্টিং ক্লাব পহরচাঁদা চকরিয়া জংগলকাটা সমাজ কল্যাণ পরিষদ এর ঈদ পূর্ণমিলনী সম্পন্ন চকরিয়া কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিসের গ্রাহকের সাথে প্রতারনা চট্টগ্রাম হালিশহরে স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে খুন করেছে পাষণ্ড স্বামী ডুলাহাজারায় দুস্থ পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ চকরিয়ায় এপেক্স বাংলাদেশের ৬০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

শিক্ষক নির্যাতন নিপীড়ন-নির্বিকার শিক্ষা প্রশাসন

Reporter Name / ১০৭ Time View
Update : রবিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২১

ডেইলি বার্তা ৭১ ডেস্কঃ

আমাদের দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় শিক্ষকতা পেশা হিসাবে কতটা অনাকাঙ্ক্ষিত ও অমর্যাদাকর তার বিচার বিশ্লেষণের সময় এসেছে। রাষ্ট্র-ই যদি বিভিন্নভাবে বঞ্চনা বৈষম্যের সৃষ্টি করে শিক্ষকদের অমর্যাদায় রাখে, তবে সন্ত্রাসীরা তো তার সুযোগ নিবেই। বিভিন্ন সরকারের সময়ে দেশে উন্নয়নের মহা প্রলয় সংগঠিত হলেও দীর্ঘ ৫০ বছরে দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় একটি শিক্ষা আইন তৈরি করতে পারেনি কোন সরকার। অথচ প্রতি বছর বাজেটে শিক্ষার জন্য সর্বোচ্চ বরাদ্দ রাখা হলেও শিক্ষকদের ভাগ্যে জোটেনি তেমন কিছুই। বাজেটের বেশিরভাগই ভাগবাটোয়ারা, দূর্নীতি আর অনিয়মে শেষ। শিক্ষকদের জীবন মানোন্নয়ন ও পেশাগত দক্ষতা অর্জনে দেশের আর্থিক সীমাবদ্ধতা বরাবরের মতো রয়েই গেছে। তাই আজো মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, উৎসব ভাতার বিষয়ে চিন্তা ভাবনা করছি। জাতীয়করণ দেশের সক্ষমতা রয়েছে কিনা তা গবেষণার বিষয়। ২০১৩ থেকে শুনে আসছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে “মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণে কত টাকা লাগবে” তার হিসাব দিতে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে হিসেবের সেই পরিসংখ্যান দেয়া হয়েছে কিনা তা জাতির কাছে আজও অজ্ঞাত। দেশের শিক্ষাব্যবস্থার মানোন্নয়ন ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পেছনে রয়েছে আমলাতান্ত্রিক জটিলতা।

সংশ্লিষ্টদের জ্ঞাতার্থে দেশের শিক্ষক লাঞ্ছনা ও নিপীড়নের সম্প্রতি কয়েকটি ঘটনা তুলে ধরা হলো।

** প্রভাষককে পেটালেন কমিটির সদস্য।
** ড্রামে পাওয়া যায় স্কুল শিক্ষিকার লাশ।
** প্রভাষককে কান ধরে উঠাবসা করানো হয়।
** প্রধান শিক্ষককে থাপ্পড় মারলেন চেয়ারম্যান।
** মনুষ্য মল মাথায় ঢেলে লাঞ্চিত সুপার।
** অভিভাবকের ঘুষিতে প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু।
** বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ জাফর ইকবাল স্যারকে সন্ত্রাসী হামলা।
** সভাপতি কর্তৃক প্রধান শিক্ষককে রক্তাক্ত করা।
** স্কুল প্রজেক্টেরে খেলা দেখতে অসম্মতি প্রকাশে প্রধান শিক্ষককে ডেকে প্রকাশ‍্যে মারধর।
** অধ্যক্ষকে হত‍্যার উদ্দেশ্য সন্ত্রাসী কর্তৃক হামলা।
** হোমনায় মেয়ের ইভটিজিং এর বিচার চাওয়া স্কুল শিক্ষক রক্তাক্ত।
** সন্ত্রাসী হামলায় শিক্ষক লাঞ্ছিত।
** বিভিন্ন অজুহাতে বহু শিক্ষক লাঞ্ছিত ও চাকরিচ্যুত।

দেশের সরকারি বেসরকারি শিক্ষকদের সামাজিক নিরাপত্তা এখন ভয়াবহ হুমকির মুখে। আশংকা ও আতংকের বিষয় আগামী প্রজন্ম গঠনে মেধাবীরা কেন শিক্ষকতায় আকৃষ্ট হবেন? দৃশ্যমান কয়েকটি ঘটনায় সহজেই অনুমেয় শিক্ষাব্যবস্থার বিরাজমান বিশৃঙ্খলা কতটা ব‍্যপক ও প্রকট। উপরোক্ত ঘটনাবলি থেকে আমাদের দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় পেশা হিসাবে শিক্ষকতা কতটা অনাকাঙ্ক্ষিত ও অমর্যাদার তার বিশ্লেষণের প্রয়োজন পরে না।
সর্বোপরি কথা হলো এখনই দেশের শিক্ষাব্যবস্থার শৃঙ্খলা ফেরাতে “জাতীয়করণের” মাধ্যমে শিক্ষার সার্বিক দায়িত্ব ও নিয়ন্ত্রণ সরকারকেই নিতে হবে। জাতীয় শিক্ষা আইনে শিক্ষকদের পেশাগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষকদের বিদ্যমান বৈষম্য দূর করতে সতন্ত্র আকর্ষণীয় বেতন-ভাতা দিতে হবে। শিক্ষকদের সচ্ছলতা ও মর্যাদাশীল না করে শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়ন অসম্ভব। এখন আর আশ্বাসে বিশ্বাস নেই। শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অবিলম্বে এমপিও শিক্ষা জাতীয়করণের গবেষণালব্ধ ফলাফল জানাতে হবে। সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারে শিক্ষার মানোন্নয়নের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে হবে। দেশের প্রথিতযশা শিক্ষাবিদদের অভিমত শিক্ষকদের সচ্ছলতা ও মর্যাদাশালী করা ব্যতিত শিক্ষার মনোনয়ন অসম্ভব। বর্তমান ধারাবাহিক সরকারের মেয়াদ তিন বছর চলছে এখনো ইশতেহারে দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে দৃশ্যমান কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। তথাপি একযুগ পর হলেও সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয় শিক্ষা আইনের খসড়া চূড়ান্তকরণ, ইএফটির মাধ্যমে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বেতন ভাতা প্রদান প্রক্রিয়া গ্রহণ, এনটিআরসির পরিবর্তে পিএসসির আদলে শিক্ষক নিয়োগ কমিশন গঠনের পরিকল্পনা, খসড়া শিক্ষা আইন চুরান্তকরণ ও দুর্বল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহ সমন্বয়ের উদ্যোগ গ্রহণকে এমপিও শিক্ষা জাতীয়করণের প্রাথমিক ধাপ বলে বিবেচনা করে সচেতন শিক্ষক সমাজ। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে এমপিও শিক্ষা জাতীয়করণ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ইতিহাসে চিরকাল স্বরণীয় ও বরণীয় হয়ে থাকবেন।

“শিক্ষক নির্যাতনকারীদের কালো হাত
ওরা এ সমাজের নিকৃষ্টতম নীচু জাত”

মোঃ সাইদুল হাসান সেলিম
সভাপতি
বাংলাদেশ বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারি ফোরাম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category